গাজীপুরে ৪৫ বছরের ভোগদখলীয় জমি ভূমিদস্যুরা জবরদখলের পায়তারা চালাচ্ছে

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:

গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার রাজাবাড়ি ইউনিয়নের ধলাদিয়া গ্রামের মৃত গিয়াসউদ্দিন ব্যাপারীর সন্তান আকরাম হোসেন ও জাকির হোসেনের ভোগদখলকৃত জমি জবরদখলের পায়তারা চালাচ্ছেন একদল ভূমিদস্যুরা।

ভুক্তভোগীদের মতে ওই ভূমিদস্যুরা হলেন, মৃত লেহাজ উদ্দিনের সন্তান
ইদ্রিস আলী ওরফে আব্দুর রহমান (৬০), তার সন্তান মাসুদ (৩২), সোহেল (৩০), রমিজ উদ্দিনের সন্তান শাহেদ আলী (৩০), সুলতান উদ্দিনের সেলিম (৩৮), উজ্জল (৩৫), তোফাজ্জল (৩০) ও মৃত লেহাজ উদ্দিনের সন্তান বাদল মিয়াসহ (৫০) আরও ৭-৮ জন।

গত ৪৫ বছর ভোগদখলকৃত জমি ২২ শতাংশ জমি [২ অক্টোবর ২০২০] ভোর পাঁচটা থেকে সাড়ে সাতটা পর্যন্ত একদল ভূমিদস্যুরা জবরদখলের উদ্দেশ্যে বাঁশের বেড়া দেয়। পরে ভুক্তভোগী আকরাম হোসেন, জাকির হোসেন ও তাদের বোনজামাই হাফেজ উদ্দিন স্থানীয় গণমান্যদের জানালে তারা বেড়া সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীদের দুলাভাই হাফেজ উদ্দিন জানিয়েছেন, ৫৩ নং ধলাদিয়া মৌজায় ওই ২২ শতাংশ জমির দলিলে দাগ নম্বর ভুল হওয়ায় গাজীপুর আদালতে মামলা নম্বর ১৬০/২০২০ করা হয়েছে। সাব কাউলা মূলে দলিল নম্বর ২৫৪ ও বন্টন নামা মূলে দলিল নম্বর ২৬৪ এর স্থলে ২৩৪ লিপিবদ্ধ করার জন্য দলিলের দাগ সংশোধনী মামলাটি করা হয়েছে।

পরবর্তীতে ভূমিদস্যু ইদ্রিস আলী ওরফে আব্দুর রহমান এর নেতৃত্বে গত [২ অক্টোবর ২০২০] ভোরে ওই জমিতে বাঁশের বেড়া ও এলোপাতাড়ি ২০-২৫টি কলাগাছ রোপণ করে। পরে স্থানীয় মেম্বার ও গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে সেগুলো সরিয়ে ফেলা হয়। বর্তমানে পূর্বের মতোই আকরাম হোসেন ও জাকির হোসেন ওই জমি ভোগদখলে রয়েছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাদের কাউকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে রাজাবাড়ি ইউনিয়নের আট নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুল কাদির জানিয়েছেন, আকরাম হোসেন ও জাকির হোসেন ভাওয়ালীদের ভোগদখলে ওই জমি ৪০-৪৫ বছর যাবত। কিছু কলাগাছ ও বেড়া দিয়েছিল তাদের প্রতিপক্ষরা। পরে আমাকে জানালে আমার ও স্থানীয় গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে বেড়া সরিয়ে নিয়েছিল তারা। এ ব্যাপারে আমরা ইউনিয়ন পরিষদে বসছিলাম, কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি, আবারও [২ ডিসেম্বর ২০২০] বসার কথা রয়েছে।

এই খবর গুলিও পড়তে পারেন