সোনারগাঁ উপজেলায় ৫ম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক শিশুকে ধর্ষণ

সোনারগাঁও প্রতিনিধিঃ

সোনারগাঁ উপজেলায় ৫ম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক মাদ্রাসা শিশুকে ধর্ষণ করেছে আপন চাচাতো ভাই। গত সোমবার রাতে বৈদ্যেরবাজার হাড়িয়া জেলে পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। আহত শিশুকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষক চাচাতো ভাই রাব্বি পলাতক রয়েছে।

মামলার এজাহারে শিশুটির বাবা উল্লেখ্য করেন, উপজেলার বৈদ্যেরবাজার হাড়িয়া গ্রামে জেলে পাড়া এলাকার তারই আপন ভাইয়ের ঘরে তার ৫শ শ্রেনীতে পড়ুয়া মেয়ে ঘুমাতে যায়। সকাল বেলা সে ঘুম থেকে উঠে না আশায় তার বড় বোন তাকে ডাকতে গেলে দেখে তার ছোট মেয়ে খাটের উপর বিবস্ত্র আহত অবস্থায় পড়ে আছে।

পরে বড় বোন ঘটনাটি আচঁ করতে পেরে পরিবারের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসার পর মেয়েটি সুস্থ হলে জানতে পারে গতকাল রাতে যখন সে ঘুমিয়ে পড়ে তখন তার চাচাতো ভাই রাব্বি (২২) জোড়পূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের সময় সে অসুস্থ হয়ে পড়লে রাব্বি পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদি হয়ে মঙ্গলবার বিকেলে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ধর্ষণের ঘটনার শুনার সাথে আমি নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে পুলিশ পাঠিয়েছি। পরে বাড়ী থেকে তার পরিবারের লোকজনকে ডেকে এনে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছি। তিনি আরো জানান আসামীকে ধরতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।

এই খবর গুলিও পড়তে পারেন