সামাজিক গল্পের দীর্ঘ ধারাবাহিক ‘গুড়েবালি’


বিনোদন ডেস্ক :


তিন অঞ্চলের খানন্দানি তিন চোর। পৈত্তিক সম্পত্তির মতো চুরি তাদের পূর্বপুরুষের পেশা। বর্তমান যুগেও এ পেশা ধরে রাখা তিন চোর নিজ নিজ গ্রামে কোন ভাবেই চুরি করে সফল না হওয়ায় আশ্রয় নেয় অন্য গ্রামে। পেশাগত কারণে কাকতালিয়ভাবে একই বাড়িতে চুরি করতে গিয়ে পরিচয় হয় তাদের। তিন চোরের মধ্যে রাজন, মোহন চোর সুমনের চেলা। তাদের মধ্যে কোন বিষয়ে অমিল হলে একটি কয়েন সকল অমিল মিল করে দেয়। তবে তাদের এ পেশার কথা এক সময় ধরা পড়ে যায় সকলের কাছে।

অপরদিকে, আশ্রয় নেয়া গ্রামের প্রভাবশালী ব্যক্তি আমান। যার চরিত্রে প্রচুর সমস্যা। মেয়ে মানুষ দেখলে তার মাথা ঠিক থাকেনা। আমানের শ্যালিকা নুপুর কয়েক দিনের জন্য তার বাড়িতে বোনকে দেখতে বেড়াতে আসে। ঘটনাক্রমে পরিচয় হয় ফ্ল্যাক্সি দোকানদার মিলনের সাথে। তৈরি হয় প্রেমের সম্পর্ক। এ ঘটনা চোখে পড়ে আমানের চেলা বদরের। আমানের সাথে থাকতে থাকতে বদরেরও চরিত্রের পতন হয়। এক সময় আমানকে তার শালিকার প্রেমের কথা বলে দিলে সৃষ্টি হয় জটিলতা।

অন্যদিকে, ওই গ্রামের মানুষের সবচেয়ে বড় সমস্যা তাদের যে কোন কাজেই তীরে গিয়ে তরি ডুবে। অর্থাৎ পরিপূর্ণভাবে কোন কাজই হয়না। কোন না কোন ভাবে অসম্পূর্ণ থাকে। এভাবে বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে এগিয়ে যায় গল্পটি।

বিখ্যাত নাট্যকার জাহিদ বাবুলের রচনায় ও আশফাক সাজু’র পরিচালনায় দীর্ঘ এ ধারাবাহিক ‘গুড়েবালি’ নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরফান আহমেদ, সোহেল খান, শাহানা রহমান সুমি, ফারজানা রিক্তা, ইমু শিকদার, জয় রাজ, শফিক খান দিলু, কাজী রাজু, সাব্বির আহমেদ, আশরাফুল আশিষ, শিশির আহমেদ, মুকুল সিরাজ, হেদায়েত উল্লাহ তুর্কী, মোকাররম মামুন, ইমরান হাসু, শিখা কর্মকার, রিপন খান, আসমা শিউলী, সাবরিনা তন্বী, শেখ স্বপ্না, ছোঁয়া মনি প্রমুখ।

পরিচালক আশফাক সাজু জানান, এই প্রথমবারের মতো কোন নাটকে মিউজিক ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করছেনে জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী মনি কিশোর। আগামী ২১ মার্চ থেকে প্রতি রবি থেকে বুধবার সন্ধ্যা ৬:৩০ মিনিটে এসএ টিভিতে ধারাবাহিকটি সম্প্রচার হবে।

এই খবর গুলিও পড়তে পারেন