গাজীপুর সদরে এক হাজার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও জরিমানা

রোকুনুজ্জামান

গাজীপুর সদর উপজেলার ভবানীপুর হাই স্কুলের উত্তরপাশে ভবানীপুর এলাকায় বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে আবাসিক অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। ৩ কিলোমিটার এলাকার ছয়টি পয়েন্টে বিচ্ছিন্ন করন অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসন ও তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর ২০২০) সকাল দশটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত এ অভিযান চলে। এ সময় বিভিন্ন আবাসিক রাইজার ও পাইপ খুলে নেওয়া হয়। এতে প্রায় ৬৫০টি বাড়ীর আনুমানিক এক হাজার অবৈধ চুলায় গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়।

গাজীপুর জেলার নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট, মো. ইকবাল হোসেন জানান, অবৈধ গ্যাস সংযোগের অভিযোগে ফর্মা আরিফকে ৩০ হাজার, রাবেয়া আক্তারকে ২০ হাজার ও আসমা আক্তারকে ২ হাজার করে মোট ৫২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

তিনি আরও জানান, রাষ্ট্রীয় এ সম্পদের চুরি ঠেকাতে আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। এ ছাড়া অবৈধ গ্যাস সংযোগ প্রদানকারী ও ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

প্রকৌশলী সুরুয আলম জানান, মঙ্গলবার আমাদের অভিযানে ভবানীপুর হাই স্কুলের উত্তরপাশে, ভবানীপুর এলাকায় ৬টি স্পটে তৃতীয় বারের মতো এক ইঞ্চি ও দুই ইঞ্চি ব্যাসের ৩ কিলোমিটার এলাকায় ৫০০ মিটার পাইপ লাইন গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। ফলে প্রায় ৬৫০টি বাড়ীর আনুমানিক এক হাজার অবৈধ চুলায় গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়।

তিনি আরও জানান, অবৈধ সংযোগ কাজে মূল হোতাদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। পর্যায়ক্রমে ভাওয়ালগড়সহ অন্য এলাকায় অবৈধ গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন করা হবে। 

যারা এসব অবৈধ সংযোগ দিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন গাজীপুর জেলা নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইকবাল হোসেন, প্রকৌ. মো. সুরুয আলম, ব্যবস্থাপক (জোবিঅ-জয়দেবপুর), প্রকৌ. এস. এম. আবু সুফিয়ান ও প্রকৌ. মির্জা শাহনেওয়াজ লতিফ, উপব্যবস্থাপকদ্বয় এবং মো. সাবিনুর রহমান (মি.ওভি) উপ-সহকারী প্রকৌশলীসহ টেকনিক্যাল টিম এবং তিতাসের অন্য কর্মকর্তারা। জেলা পুলিশ ও ব্যাটালিয়ান আনসার সার্বিকভাবে অভিযানে সহযোগিতা করেন।


এই খবর গুলিও পড়তে পারেন