সোনারগাঁও থানায় জিডি অভিযোগ ও মামলা করতে বিনিময় লাগে না

সোনারগাঁ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের নেতৃত্ব জনগনের দাবি পূরণ ও কল্যানের জন্য সোনারগাঁ থানা পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। আগে ওসির রুমের সামনে এসে মানুষকে ভয়ে দাড়িয়ে থাকতে হতো এখন সোনারগাঁ থানার ওসি দরজা জনগেরর জন্য খোলা থাকে। সোনারগাঁ থানায় জিডি, অভিযোগ ও মামলা করতে কোন দালাল ও বিনিময় করতে হয়না।

সোমবার (১৮জানুয়ারি) বিকেলে সোনারগাঁ থানা পুলিশের উদ্যোগে আয়োজিত উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ওপেন হাউজ ডে উপলক্ষে সোনারগাঁ থানার ওসি রফিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, সোনারগাঁ থানায় জনগনের সেবা করার জন্য ডিউটি অফিসারের সাথে একজন সহযোগী রয়েছে যিনি জনগনের ডিজি ও অভিযোগগুলি লিখে দেন। এছাড়া সোনারগাঁ থানা এখন সোর্সমুক্ত। পুলিশের র্সোস হচ্ছে জনপ্রতিনিধি চেয়ারম্যান মেম্বার ও সাংবাদিক। আমরা তাদের কাছ থেকে সঠিক তথ্য নিয়ে কাজ করছি। এতে সফলতা আসছে।

গত কয়েকদিনে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা ও বাড়ী মজলিশ এলাকা থেকে মহাসড়ক ডাকাত চক্রের ১৭জন ডাকাতকে গ্রেফতার করেছি। সে জন্য পুলিশ সুপার মহোদয় আমাদের সাহয্য করছে ওনার বিশাল পুলিশ বাহিনী রয়েছে সে বাহিনীর মাধ্যমে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

মাদককের ব্যাপারে ওসি রফিক বলেন, সমাজে মাদক নির্মূল করতে হলে প্রতিটি মানুষের এগিয়ে আসতে হবে। কারণ যারা মাদক বিক্রি ও সেবন করে তারা কারো না কারো ভাই ও আত্মীয়। মাদক ব্যবসায়ীদের সকল ধরনের তথ্য দেয়ার পাশাপাশি তাদের সামাজিক ভাবে বয়কট করতে হবে। তাদের সাথে আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করতে হবে তাদের সাথে ছেলে মেয়েদের বিবাহ দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে তাহলে তারা সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে মাদক ছেড়ে ভাল হয়ে যেতে পারে।

পুলিশকে জনগনের বন্ধু উল্লেখ করে ওসি বলেন, মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার পুলিশ হবে জনতার এ শ্লোগানকে সামনে রেখে আমরা জনগনের সেবা করে যাচ্ছি। আপনারা যখন আরামে ঘুমিয়ে থাকেন তখন কিন্তু পুলিশ সজাগ থেকে আপনাদের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করে। আমরা যখনই কোন দুঃসংবাদ পাই তখনই সেখানে ছুটে যাই।

এয়াড়া জনগনের সেবার জন্য সরকার ৯৯৯ নাম্বার ২৪ ঘন্টা খোলা রেখেছে সেখানে ফোন দিলে আপনাদের সেবা করতে পুলিশ বাধ্য রয়েছে।

এই খবর গুলিও পড়তে পারেন