গাজীপুর শ্রীপুরে ছেলের হাতে মা খুন

শ্রীপুর প্রতিনিধিঃ

গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ সোনাব গ্রামে মা’কে কুপিয়ে হত্যা করেছে ঘাতক ছেলে। তাকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে নিজ বাড়ীতে ইয়াসিন(১৪) নামের এই কিশোর তার মা রেহেনা আক্তার(৪৪)কে দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করলে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় স্থানীয়দের সহায়তায় অভিযুক্ত কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। পরিবারের দাবী, অভিযুক্ত কয়েকবছর ধরেই মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন।

অভিযুক্ত ইয়াসিন সোনাব গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে। আর নিহত রেহেনা আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী। ইয়াসিন স্থানীয় বলদীঘাট জেএম উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

নিহতের স্বামী আনোয়ার হোসেনের ভাষ্য,তারা হতদরিদ্র পরিবারের। তিনি মাঠে কাজ করেন। তার পাঁচ ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে অভিযুক্ত ইয়াসিন প ম। প্রতিদিনের মতো তিনি সকালেই মাঠে চলে গিয়েছিলেন কাজে। বাড়ীতে স্ত্রী রেহেনা,অভিযুক্ত ইয়াসিন ও ছোট ছেলে ইব্রাহীম ছিল। এক পর্যায়ে ইব্রাহীমকে তারমা বাড়ীর পাশের দোকান থেকে পান আনতে পাঠায়। আর ইয়াসিনকে ডাব খেতে দেয়। ইয়াসিন নিজ হাতে ডাব কাটার সময় একপর্যায়ে হাতে থাকা দা দিয়ে তার মাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে রেহেনার আর্তচিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরো জানান, তার ছেলে ইয়াসিনের গত তিন বছর পূর্বে মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। পরে বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা করলে সে ভালো হয়ে উঠে। তবে গত দুই,তিন ধরে তার মধ্যে পূর্বের সে সমস্যা ফের দেখা দেয়। এই সময়টাতে অনেকটা অপ্রকৃতি গ্রস্থ আচরণ ছিল তার মধ্যে।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার পরিদর্শক মনিরুজ্জামান খান জানান,অভিযুক্ততে আটক করা হয়েছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

এই খবর গুলিও পড়তে পারেন